Menu

শ্যামপুর-চামা বাজারে মৃত ও অসুস্থ ছাগল বিক্রির অভিযোগ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলা শ্যামপুর-চামা বাজার মৃত ও অসুস্থ ছাগল বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে। মৃত ও অসুস্থ ছাগল বিক্রি নিয়ে চামা বাজারে ব্যাপক সমালোচনা ও উদ্বেগ দেখা গেছে স্থানীয় সুশীল সমাজের গণমান্য ব্যক্তির মাঝে।

জানা গেছে, দীর্ঘদিন থেকে এই বাজারে রাজশাহী থেকে পাইকাররা এসে এসব মৃত ও অসুস্থ ছাগল কেনে নিয়ে বিভিন্ন হোটেলে বিক্রি করে থাকেন। এর আগে ২০১৭ সালে তৎকালীন সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট কল্যাণ চৌধুরী একই অভিযোগে এক ব্যক্তিকে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদ- প্রদান করেন। মাঝখানে কিছু তা বন্ধ হলেও বর্তমানে এই বাজারে প্রতি রবিবার ও বৃহষ্পতিবার প্রায় মৃত ছাগল জবাই করে নিয়ে এনে বিক্রি করছে। এছাড়াও অসুস্থ ছাগল বাজারে বিক্রয়ের জন্য আনা হয় এবং বাজারেই মারা যায়।

এদিকে, আজ বৃহষ্পতিবার বিকেলে এমনই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনা নিয়ে বাজারে বিভিন্ন চায়ের দোকান ও পথেমধ্যে সমালোচনা এবং উদ্বেগ প্রকাশ করছেন এলাকার সাধারণ মানুষ। তাঁরা অভিযোগ করে বলেন, মানুষ এতোটা অমানবিক কাজ করবে ভাবাই মুশকিল। এর আগেও এমন অনেক ঘটনা ঘটেছে। তার মধ্যে একজনকে সাজা দেয়া হয়েছিলো। তারপরও মানুষ সচেতন হচ্ছে না।

এব্যাপার চামা বাজার হাট কমিটির সদস্য শ্যামপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান ভোদন জানান, আমাদের অজানতে কিছু অসাধু ব্যক্তি আছে, যারা অসুস্থ ছাগল বাজারে নিয়ে আসে। এছাড়াও রাজশাহী থেকে অসাধু ছাগল পাইকারেরা আমাদের নজরের বাইরে এসব ঘটনা ঘটিয়েছে। এদের কারণে আমাদের বাজার মান-সম্মান হারিয়ে যাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, আমি হাট কমিটির একজন অংশিদার হয়েও প্রায় ৫মাস হাটে আসিনি। এঘটনার আমার জানা ছিলো না। আমি আগামী হাট আসার আগে বাজারে সব স্থানে সতর্ক বার্তার মাইকিং করে দিবো। যেনো কেউ হাটে আর অসুস্থ ছাগল নিয়ে না আসে।

এব্যাপারে শিবগঞ্জ উপজেলা স্যানেটারী ইন্সিপেক্টর শ্রী নিতাই চন্দ্র ঘোষ জানান, এবিষয়টি জানলাম এখন। পরবর্তীতে আমরা সরজমিনে পরিদর্শন ও তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

এদিকে, শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শামসুল আলম শাহ জানান, এধরণের ঘটনার অভিযোগ আমার কাছে এখন পর্যন্ত আসেনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেবো।

অন্যদিকে, শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ শিমুল আকতারের সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভি না করায় যোগাযোগ করার সম্ভব হয়নি।

Flag Counter

April 2020
M T W T F S S
« Mar    
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
27282930