Menu

নাচোলে আনসার সদস্যদের কাছে উৎকোচ নেওয়ার অভিযোগ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে

নাচোল(চাঁপাইনবাবগঞ্জ)প্রতিনিধিঃ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে বিভিন্ন নির্বাচন কে কেন্দ্র করে ডিউটির নাম করে সাধারণ আনসার সদস্যদের কাছে মোটা অংকের উৎকোচ নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে।সাধারণ আনসার সদস্যরা বিভিন্ন নির্বাচনে ডিউটি করে যে টাকা পায় তার সিংহ ভাগই টাকা চলে যায় নাচোল উপজেলা আনসার অফিসে উৎপেতে থাকা দালালদের হাতে।যার ফলে সাধারণ আনসার সদস্যরা বঞ্চিত হচ্ছে তাদের নায্য অধিকার থেকে।ভুক্তভোগিদের অভিযোগ ও সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে,গত ৩০ শে ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ও ২৮ শে ফেব্রুয়ারি সদর ইউনিয়নের উপ নির্বাচনে ফতেপুর ইউপির বিভিন্ন আনসার সদস্যদের ডিউটিতে নিয়োজিত করা হয়।নির্বাচনে ডিউটিতে নিয়োজিত করার আগে আনসার সদস্যদের যাচাই-বাছাই করা হয়।কিন্তু সেই যাচাই-বাছাইয়ে নিয়োগ থাকে সার্টিফিকিট না থাকা স্থানীয় আনসার কমান্ডরা।ফলে মুল সনদ ধারী আনসার সদস্যদের কিছু নিলেও বেশির ভাগ ভুয়া সদস্যরাই যাচাই বাছাইয়ে নির্বাচিত হয়। গত ২৮ শে ফেব্রুয়ারি সদর ইউনিয়নের উপ নির্বাচনে যাছাই বাছাইয়ে টিকে ফতেপুর ইউপির আনসার সদস্য খাদেমুল,জোহরুল ইসলাম,নাজমা খাতুন সহ বেশ কয়েএক জন। তারা মুল সনদ ধারী ও প্রশিক্ষনপ্রাপ্ত আনসার হওয়ার সত্তেও তাদের কাছে জেলা এ্যাডজুটেন্ড এর নাম করে মোটা অংকের উৎকোচ নেওয়ার জন্য চাপ দিতে থাকে ফতেপুর ইউপির সদস্য ও উপজেলা আনসার অফিসের কমান্ডার আজিজুর রহমান।ফতেপুর ইউপির সদস্য আজিজুর রহমান খাদেমুল ইসলাম কে মোবাইল ফোনে জানায় তোমরা যারা নির্বাচিত হয়েছে ডিউটির জন্য প্রত্যেককে তোমাদের ৩০০ টাকা করে উৎকোচ লাগবে। আর সেই টাকা জেলা এ্যাডজুটেন্ড ও উপজেলা আনসার কর্মকর্তা গোলাম মাওলা কে উৎকোচ হিসাবে লাগবে।দুই দিনের মধ্যে টাকা না দিলে তোমাদের ডিউটি থেকে বাদ দেওয়া হবে।পরে খাদেমুল ইসলাম,নাজমা খাতুন,জোহরুল সহ বেশ কয়েএকজন আনসার সদস্য ফতেপুর ইউপির সদস্য ও উপজেলা আনসার অফিসের কমান্ডার আজিজুর রহমান কে উৎকোচ হিসাবে ৩০০০ টাকা দেয়।এছাড়া ও ফতেপুর ইউপির সদস্য ও উপজেলা আনসার অফিসের কমান্ডার আজিজুর রহমান তাদের কাছে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে উৎকোচ হিসাবে জন প্রতি ৩০০ টাকা নিয়ে ডিউটিতে অর্ন্তভুক্ত করে।গত ২৪ শে মার্চ নাচোল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ডিউটিতে তাদের নাম অর্ন্তভুক্ত করার জন্য ফতেপুর ইউপির সদস্য ও উপজেলা আনসার অফিসের কমান্ডার আজিজুর রহমান উৎকোচ হিসাবে সেই ভুক্তভোগিদের কাছে আরো ৩০০টাকা করে উৎকোচ চাচ্ছে । উৎকোচের টাকা না দিলে আনসার সদস্যদের ডিউটির টাকা কেটে নেওয়া হবে বলে ঐ ইউপি সদস্য ভুক্তভোগিদের চাপ প্রয়োগ করছে বলে জানা গেছে।
এ বিষয়ে ফতেপুর ইউপির আনসার সদস্য খাদেমুল ইসলাম ও নাজমা খাকুন জানান, ফতেপুর ইউপির সদস্য ও উপজেলা আনসার অফিসের কমান্ডার আজিজুর রহমান জাতীয় সংসদ নির্বাচনে উৎকোচ হিসাবে আমাদের কাছে ৩০০০টাকা নেয় এবং গত ২৪ শে মার্চ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ডিউটিতে আমাদের নাম অর্ন্তভুক্ত করার জন্য উৎকোচ হিসাবে বর্তমানে আরো তিন হাজার টাকা করে উৎকোচ চাচ্ছে।
এ বিষয়ে ফতেপুর ইউপির সদস্য ও উপজেলা আনসার অফিসের কমান্ডার আজিজুর রহমানের কাছে উৎকোচ নেওয়ার বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি প্রতিবেদক কে রিপোর্টটি না ছাপাতে অনুরোধ করে।
এ বিষয়ে উপজেলা আনসার কর্মকর্তা গোলাম মাওলা জানান,কোন আনসার সদস্যদের কাছে উৎকোচ নেওয়া যাবে না।অভিযোগ যদি প্রমানিত হয় তাহলে তাঁর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানান।

August 2019
M T W T F S S
« Jul    
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031  

Flag Counter