Menu

ভোলায় পৌর নির্বাচনে আ.লীগের প্রার্থীর ব্যক্তিগত ভাবমূর্তি ও উন্নয়ন দেখে ভোট দেবে , বিএনপির দাবী নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হলে ধানের শীষ প্রতীকেরই জয় হবে

 
বিজয় নিউজ বিডি, ২২ ডিসেম্বর, জেলা প্রতিনিধি, মোঃ ফজলে আলম ভোলা :

ভোলা পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে লড়ছেন ৩ জন প্রার্থী। এরা হলেন, আওয়ামীলীগের মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান ( নৌকা প্রতীক), বিএনপির হারুন-অর-রশিদ ট্রুুম্যান (ধানের শীষ) ও ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন বাংলাদেশের আতাউর রহমান (হাত পাখা)। এছাড়াও সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১৭ এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৯ জন লড়ছেন।
আসন্ন ভোলা পৌরসভায় এবার প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। দলীয় প্রতীকই এবার ভোটের ফলাফল নির্ধারেণ প্রধান ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন বিএনপি। নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে ধানের শীষ প্রতীকেরই মানুষ ভোট দেবে। Bhola
অপরদিকে শুধু দলীয় প্রতীক নয় ভোটাররা প্রার্থীর ব্যক্তিগত ভাবমূর্তি ও উন্নয়ন দেখে ভোট দেবে বলে মনে করছেন আওয়ামী লীগ। তাদের মতে দলীয় প্রতীকের পাশাপাশি উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে জনগন নৌকায় ভোট দেবে।
দুই দলের প্রার্থী ও সমর্থকরা ভোলা পৌরসভার নির্বাচনে ৩১ হাজার ৩৬০ ভোটারের নিরঙ্কুশ জয়লাভের আশাবাদ জানিয়েছেন।
আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বর্তমান মেয়র মনিরুজ্জামান ও তার সমর্থকরা মনে করছেন, গত পাঁচ বছর তিনি মেয়র থাকাকালীন ভোলা পৌরসভায় ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। যে রাস্তা ঘাট, ব্রীজ, কালভাট, শহরের রাস্তার দু’পাশে ফুটপাত নির্মান, সুন্দর্য বর্ধনসহ বিভিন্ন উন্নয়নে পৌর এলাকার দৃশ্যপট পাল্টে গেছে। তাই দলীয় প্রতীক হওয়ায় মানুষ যেমন ভোট দেওয়ার ক্ষেত্রে জাতীয় ও স্থানীয় ইস্যু বিবেচনা করবে, তেমনি ব্যালটে সিল মারার ক্ষেত্রে ব্যক্তিগত ভাবমূর্তি ও কাকে ভোট দিলে উন্নয়ন হবে তা বিবেচনা করবে।
গত ৫ বছরে ভোলা পৌরসভার যে উন্নয়ন হয়েছে তা এর আগের ৫০ বছরেও হয়নি। তাই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে জনগণ নৌকা মার্কাতেই ভোট দেবেন বলে সরকার দলীয় প্রার্থী ও সমর্থকদের দাবী।
স্থানীয় নির্বাচনে উন্নয়ন ও প্রার্থীর ব্যক্তিগত ভাবমূর্তিটা ভোটারদের মধ্যে কাজ করবে। আ.লীগ উন্নয়নমুখী দল এটা ভোলা পৌরবাসী জানে, এক্ষেত্রে নৌকা এবার এগিয়ে থাকবে।
ভোলা পৌরসভায় বিএনপির মেয়র প্রার্থী হারুন-অর-রশিদ ট্রুুম্যানের নির্বাচনী গণসংযোগ
অপরদিকে, বিএনপির মেয়র প্রার্থী জেলা বিএনপির যুগ্ন সম্পাদক হারুন-অর-রশিদ ট্রুুম্যান ও তার সমর্থকদের দাবি, ভোলা পৌরসভায় যে কোনো নির্বাচনে বরাবরই ধানের শীষের পক্ষে থেকেছে মানুষ, এবারও এর ব্যতিক্রম হবে না।
তারা মনে করেন, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হলে ধানের শীষ প্রতীকেরই জয় হবে। এসময় তারা নিরপেক্ষ নির্বাচন নিয়ে নিজেদের শংকার কথা জানান।
এ প্রসঙ্গে জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আমিনুল ইসলাম বলেন, মানুষ বিগত জাতীয় নির্বাচনে ভোট দিতে পারেনি। ভোলা সদর প্রাক্তন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও বিএনপি নেতা মরহুম মোশারেফ হোসেন শাজাহানের ঘাটি। তিনি দল মত নির্বিশেষে এলাকার মানুষের জন্য কাজ করতেন। তাই বিগত প্রত্যেকটি নির্বাচনে মানুষ বিএনপিকে ভোটদিয়ে জয়যুক্ত করেছে। সে বিবেচনায় এবারও ভোলা পৌরসভার মানুষ ধানের শীষ প্রতীকে ভোট দেবে।
এসময় তিনি অভিযোগ করে বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু হলে ধানের শীষের জয় সুনিশ্চিত। তাই নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে আ.লীগ প্রার্থীর সমর্থকরা আমাদের প্রচার-প্রচারনায় বাধা দেয়াসহ নেতা-কর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি ধামকি দিচ্ছে।
তবে বিএনপির এ অভিযোগ অস্বীকার করেন আ.লীগ দলীয় মেয়র প্রার্থী ও জেলা যুব লীগের আহ্বায়ক মনিরুজ্জামান মনির। তিনি বলেন, পৌরসভার প্রত্যেকটি ওয়ার্ডে নৌকার জোয়ার দেখে বিএনপি বুঝতে পেরেছে তাদের পরাজয় সুনিশ্চিত। তাই তারা নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র করছে।

Flag Counter

April 2021
M T W T F S S
« Feb    
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
2627282930